বিমান বন্দর নতুন টার্মিনাল আজ থেকে চালু : জনদুর্ভোগ

সং বাদদাতা। ১৫জানুয়ারি।

মহারাজা বীরবিক্রম কিশোর মানিক্য বাহাদুর বিমান বন্দর নবনির্মিত টার্মিনাল ভবনের কাজ আজ থেকে শুরু হয়েছে। পুরোনো টার্মিনাল ভবন থেকে আর কোনো কাজকর্ম হবে না। আজ কলকাতা থেকে আগত আগরতলা বিমান যাত্রীদের স্বাগত জানাতে বিমান বন্দরে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় সামাজিক উন্নয়ন দপ্তরের প্রতিমন্ত্রী প্রতিমা ভৌমিক। তিনি আগরতলা বিমান বন্দরে যাত্রীদের স্বাগত জানান । তিনি আজকে মনিপুর গেছেন।
নবনির্মিত টার্মিনাল ভবনের শুভ উদ্বোধন করেন দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী গত ৪জানুয়ারি। আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরের মযার্দা দেয়ার লক্ষ্যে সরকার কাজ করছে। নবনির্মিত ভবনে এক সাথে ১২০০জন যাত্রী বসতে পারবে। রাতে বিমান উঠা নামার ব্যবস্থা করা হয়েছে। রাতে এক সাথে বেশ কয়টি বিমান এখন এখানে থাকতে পারবে। সেই দিকে নজর রেখে বিমান বন্দর অত্যাধুনিকভাবে সাজিয়ে তোলা হয়েছে।


আগামী দিনে আগরতলার এই বিমান বন্দর ব্যবহার করতে পারবেন পার্শ্ববর্তী রাষ্ট্র বাংলাদেশ। সেই দেশের নাগরিক গন অতিসহজে আমাদের এই বিমান বন্দর ব্যবহার করে দেশের বিভিন্ন স্থানে যেতে পারবেন। বিমান বন্দর সুযোগ বৃদ্ধি র সাথে সাথে আখাউড়া স্থলবন্দর গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠবে বলে অভিজ্ঞ মহলের ধারণা।


উল্লেখ্য ১৯৪২ সালে তৎকালীন মহারাজা দ্বিতীয় মহাযুদ্ধের সময় এই বিমান বন্দর স্থাপন করেছিলেন।
এদিকে বিমান বন্দর টার্মিনাল ভেতরে অন্যান্য গাড়ি পার্কিং করার সুযোগ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু অটোরিকশা চালকদের টার্মিনাল ভেতরে পার্কিং করার সুযোগ দেওয়া হয় নি আজ।এর কারণে নতুন টার্মিনাল চালু হবার পর যাত্রীদের চরম দুর্ভোগে পড়তে হয়েছে। বিমান থেকে নেমে লাকেজ নিয়ে বহুদুর পর্যন্ত টেনে বা কাঁদে বয়ে নিয়ে যেতে হয়েছে।বয়স্ক যাত্রীদের চরম দুর্ভোগে পড়তে হয়েছে। টার্মিনাল ভবনের ভবনের সামনে অটোরিকশা যেতে না দেওয়ার প্রতিবাদে চালক আজ কোন যাত্রী পরিবহন করে নি।
অন্যদিকে অটোরিকশা চালক দের পক্ষ থেকে বিমান বন্দর কর্তৃপক্ষ সাথে আলোচনা কালে জানানো হয় বিষয়টি নিয়ে শীঘ্রই কতৃপক্ষ মতামত জানানো হবে। তারপরও চালকগন তাদের দাবি তে অনড় থাকায় যাত্রীদের দুর্ভোগ চরম পৌঁছে গেছে। এখন দেখার এই সমস্যার সমাধান কবে হয়।

Leave a Comment

Your email address will not be published.